বাইক

বাইক কেনার আগে যা জানা প্রয়োজন এবং কমদামে ৩ টি চমৎকার বাইক

বাইক গাড়ি
Spread the love

বাইক কেনার আগে যা জানতে হবে

বাইক কেনার আগে কিছু ব্যাপার আপনার জানা প্রয়োজন। যারা নতুন বাইক কিনবেন তাদের জন্য এই সেকশনটা গুরুত্বপূর্ণ। আর যারা আগে থেকেই বাইকের খুঁটিনাটি জানেন তারাও একবার চোখ বুলিয়ে নিবেন। অনেক কিছুই হয়তো আপনার অজানা থাকতে পারে।

bike bd

বর্তমানে চলতে ফিরতে বাইকের প্রয়োজনীয়তা বলে শেষ করা যাবেনা। দ্রুতগতিতে এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় চলাচল করতে বাইকের চেয়ে সেরা বন্ধু আর কি হতে পারে! তাহলে চলুন বাইক কেনার আগে যা জানা প্রয়োজন তা দেখে নেই ।

বাইক কেনার আগে প্রথমে বাজেট নির্ধারণ করুন

biker bd

বাইক কেনার আগে বাজেট নির্ধারণ করতে হবে। তবে এই কথাটা শুধুমাত্র তাদের জন্য যাদের বাজেট লিমিটেড। যাদের কাছে টাকা পয়সা কোনো ব্যাপার না তাদের জন্য এই সেকশন অগুরুত্বপূর্ণ।

তবে যাদের বাজেট লিমিটেড তারা বাজেট অনুযায়ী বাইকের খোঁজ করুন। আপনার বাজেট অল্প হলে অনেক ব্যাপার এমনিতেই বাদ পরে যাবে।

তবে বাজেট অনুযায়ী বাইকের কালার, দেখতে কেমন হবে এসব ব্যাপার ঠিক করে ফেলতে পারবেন। বাজেট রেঞ্জ ঠিক না করলে যত বেশি টাকার বাইক দেখবেন, চোখ তত বেশি ওগুলোর দিকেই চলে যাবে। এটাই স্বাভাবিক।

প্রথমে বাজেট নির্ধারণ করে ফেললে পছন্দের লিস্ট এমনিতেই ছোট হয়ে আসবে, সিদ্ধান্ত নেয়া সহজ হবে। বাজেট নির্ধারণের খুব সুন্দর গুণ এটি।

টেস্ট রাইড বা পরীক্ষামূলক রাইড দিতে হবে

moto cycle bd

তারপর যে মটর সাইকেলগুলো আপনার পছন্দ হবে সেগুলো চালিয়ে পরীক্ষা করুন যে আপনার শরীরের সাথে সামঞ্জস্য হচ্ছে কিনা, চালিয়ে আরাম পাচ্ছেন কিনা ইত্যাদি।

এক্ষেত্রে পরিচিতজনের মটর সাইকেল চালাতে পারেন। আর সেই মটর সাইকেলগুলো যদি পরিচিতদের মধ্যে না থাকে তাহলে দোকানে যেয়ে টেস্ট করতে পারেন।

প্রায় সব বাইক কোম্পানীগুলোই এখন টেস্ট রাইডের সুযোগ দিচ্ছে। পরীক্ষামূলকভাবে না চালালে পরে পছন্দ না হলে বদলাতে তো পারবেন না!

এক্সপার্ট বাইকারদের পরামর্শ নিন

বাইক চালানো

বাইক বা মটর সাইকেল কেনার আগে অবশ্যই পরিচিত বাইকারদের পরামর্শ নিবেন। পরামর্শ নিবেন তাদের থেকে কিন্তু সিদ্ধান্ত নিবেন আপনি।

এমনও হতে পারে যার থেকে মতামত বা পরামর্শ চেয়েছেন উনার আগেই এই মটর সাইকেলটি ছিলো। উনার চেয়ে ভালো পরামর্শ কে দিবে বলুন!

আবার ফেসবুকে বিভিন্ন বাইকারদের গ্রুপেও পরামর্শ চাইতে পারেন। এখন তো তথ্য যোগাড় করা অনেক সহজ হয়ে গিয়েছে।

মাইলেজ দেখতে হবে

বাইক বিডি

ডেইলি ব্যবহার এবং খরচ কম রাখতে চাইলে আপনাকে মাইলেজের দিকে নজর দিতে হবে। লম্বা দূরত্বের জন্য মাইলেজ অনেক বড় ফ্যাক্ট আসলে।

তবে হ্যাঁ, অনেকের ধারণা ভালো মাইলেজ মানেই ভালো মটর সাইকেল। তবে এই ধারণা একদমই ঠিক না। শুধু মাইলেজ দেখলেই হবেনা, ইঞ্জিনের দিকেও নজর দিতে হবে।

খুচরা যন্ত্রাংশ সহজে পাবেন কিনা তা জেনে নেয়া

বাইকার

এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। অনেকে ভাবেন যে এটা জেনে কি করবেন!

এটা আপনাকে জানতেই হবে। কারণ যন্ত্র নষ্ট হতেই পারে। সেক্ষেত্রে যদি ওই বাইকের যন্ত্রাংশ সহজে না পাওয়া যায় বা পাওয়া গেলেই অনেক দাম হয় তাহলে বিপদে পড়বেন না?

তাই কেনার আগে যন্ত্রাংশের ব্যাপারে খোঁজ নিন যেন ভবিষ্যতে কোনো সমস্যায় পড়তে না হয়।

অথোরাইজ বা অনুমোদিত ডিলার থেকে কিনুন

বাইকিং

অনেকে কমদামে মটর সাইকেল দেয়ার কথা বলে। পরে দেখা যায় তার কাছ থেকে ‘আফটার সেলস সার্ভিস’ পাওয়া যায়না। সেক্ষেত্রে কেনার পর মটর সাইকেল নিয়ে কোনো সমস্যায় পড়লে কোনো সাহায্য পাবেন না তাদের থেকে।

এজন্য যে মটর সাইকেল কিনবেন সেই কোম্পানির অথোরাইজ ডিলার থেকে কিনুন। কেনার পর কোনো সমস্যায় পড়লে তাদের থেকে সাহায্য পাবেন।

পুনর্বিক্রয়মূল্য বা রিসেল ভ্যালু

বাইকে ভ্রমণ

যারা ঘনঘন মটর সাইকেল বদল করেন এটা তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। যে সাইকেলটি কিনছেন সেটা পরে দাম কেমন হবে, কেমন দামে বিক্রয় করতে পারবেন এসব বুঝে নিবেন।

যে মটর সাইকেলগুলো অনেকদিন পর্যন্ত ভালো দামে বিক্রয় করতে পারবেন সেগুলো কিনুন। কথাটা তাদের জন্য প্রযোজ্য যারা বারবার সাইকেল বদলাতে চান

মোটামুটি এই ব্যাপারগুলো মাথায় রাখবেন। এখন কমদামে (১ লক্ষ টাকার মধ্যে) ৫ টি মটর সাইকেলের সাজেশন্স দিবো আমি। চাইলে কিনতে পারেন।

আর অনলাইন থেকে কিনতে পারবেন নির্দ্বিধায়। কারণ এগুলো অলরেডি অনেকে ওই শপ থেকে কিনেছেন এবং ভালো রিভিউ দেয়া আছে।

কমদামে ৩ টি চমৎকার বাইক

মটর সাইকেল

আপনার বাজেট যদি ১ লক্ষ টাকার আশেপাশে হয় তাহলে এই ৫ টি বাইক দেখতে পারেন। এগুলোর রেটিং ভালো। আপনারও ভালো লাগতে পারে।

#1 TVS Metro Plus 110cc Motor Cycle

যাদের মোটামুটি সিম্পল মটর সাইকেল পছন্দ তারা এই বাইকটি দেখতে পারেন। আর এই দামে এই প্রোডাক্টটি ভালোই। তাহলে চলুন কি কি আছে সেগুলো দেখে ফেলি,

  • ৪ স্ট্রোকের এয়ার কুলড স্পার্ক ইঞ্জিন এবং সিঙ্গেল সিলিন্ডার আছে ৫.৩ মিলিমিটারের।
  • এর কিউবিক ক্যাপাসিটি বা সিসি ১১০। মন্দ না।
  • স্ট্রোক ৪৮.৮ মিলিমিটারের।
  • কেলিহিনের কার্বুরেটর। মডেল এভি১। এই মডেলটা ভালোই।
  • গিয়ার ৫ টি।
  • ফুয়েল ট্যাংকের ক্যাপাসিটি ১০ লিটার।
  • বিস্তারিত এবং প্রোডাক্টটির বর্তমান দাম জানতে এখানে দেখে আসুন।

এই সেলারের পজিটিভ রেটিং ৯২%। ভালো বলা যায়। তবে ডেলিভারিতে দেরি করতে পারেন। শিপিং টাইম রেটিং ৭০%।

আর এই প্রোডাক্টে পাবেন ২ বছরের সেলার ওয়ারেন্টি। তবে তারা ৬ বার সার্ভিস দিবে এই সময়ের মধ্যে। ১২ মাস পর্যন্ত কিস্তিতেও কিনতে পারবেন।

তবে টিভিএসের এই প্রোডাক্টটি যাদের পছন্দ না তারা এই এটা এভোয়েড করতে পারেন।

ভিডিও রিভিউটি দেখতে পারেন

#2 Bajaj Platina 102 Electric Starter Motorcycle

এই বাইকের ডিজাইন সিম্পল। কালো কালারের প্রোডাক্ট। সিঙ্গেল সিলিন্ডার এবং ১০২ সিসির মটর সাইকেল।

এই মটর সাইকেলের টপ স্পিড ৯০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায়। তবে এই দাবি কোম্পানি থেকে করা হয়েছে। এর ফ্রন্ট ব্রেক ১৩০ ড্রাম এবং পেছনের ব্রেক ১১০ ড্রাম। এর ফুয়েল ট্যাংকের ক্যাপাসিটি ১১.৫ লিটার।

এই দামে এই মটর সাইকেলটি খারাপ না। তবে আমি বলবো ১ লাখ টাকার বাজেট থাকলে উপরের টিভিএসটা দেখতে পারেন। তবে টিভিএসের চাইতে বাজাজের এই সাইকেলটি একটু সুন্দর আরকি। এতোটুকই।

এতে পাবেন দুই বছরের ইঞ্জিন ওয়ারেন্টি এবং ১ বছরে ৩ বার পুরো মটর সাইকেলের ফ্রি সার্ভিস ওয়ারেন্টি। এর ভালো রিভিউ পেয়েছি। আশা করি আপনিও স্যাটিসফাই হবেন। আরো বিস্তারিত এবং এর বর্তমান দাম জানতে এখানে দেখুন।

ভিডিও

#3 Suzuki Hayate

এই তিন মটর সাইকেলের মধ্যে যে সাইকেলটি বেশি ভালো লেগেছে তা হলো এই সুজুকি হায়াট ছাই কালারের বাইকটি। দেখতে খুব জমকালো না হলেও ভালো লাগে।

এইতো গেলো এর লুকের ব্যাপার। এটাতে আছে ১ টা সিলিন্ডার এবং ৪ স্ট্রোকের এয়ার কুলড ইঞ্জিন। এর স্টার্টার সিস্টেম হলো কিক বা ইলেকট্রিক সিটেম আর ফুয়েল সিস্টেম হলো কার্বোরেটর।

এর টায়ার টিউবলেস এবং ট্রাসমিশন ৪ স্পিডের। তবে একটা ব্যাপার বিরক্তিকর। সেটা হলো এর স্পিডোমিটারটি এনালগ, ডিজিটাল নয়।

এটার ওয়ারেন্টি সিস্টেম টা একটু জটিল। এর ইঞ্জিনের ওয়ারেন্টি ২ বছর অথবা ৩০ হাজার কিলোমিটার রাইড এই দুইটার মধ্যে যেটা আগে শেষ হয়। ১০ বার ওয়ারেন্টিতে সার্ভিস করাতে পারবেন। তবে বলা হচ্ছে ১০ বারের মধ্যে প্রথম ৪ বার ফ্রি করাতে পারবেন।

তেলের ফিল্টার, ক্লাচ প্লেট, ক্লাচ এসেম্বলি, স্পার্ক প্লাগ ইত্যাদি আবার ওয়ারেন্টির আওতাভুক্ত হবেনা। এই মটর সাইকেলটি নিয়ে আরো বিস্তারিত জানতে এবং বর্তমান দাম জানতে ভিজিট করুন এখানে

ভিডিও রিভিউ

ধন্যবাদ লেখাটি পড়ার জন্য। আমাদের আরো রিভিউ পড়তে ‘জেনে কিনবো‘ হোম পেইজ ভিজিট করুন।

আমাদের আরো ব্লগ পড়ুন