ওজন মাপার যন্ত্র

২ টি সেরা স্মার্ট ওজন মাপার যন্ত্র রিভিউ

ইলেকট্রনিক পণ্য ঘরোয়া পণ্য মেডিকেল সাপ্লাইজ
Spread the love

দুইটি সেরা ওজন মাপার যন্ত্র

আজকে আমি দুটি ওজন মাপার যন্ত্র নিয়ে রিভিউ দিবো। অনেক ধরনের যন্ত্র আছে। অ্যানালগ, ডিজিটাল ইত্যাদি। ধীরে ধীরে সবকিছুই যেমন স্মার্ট হচ্ছে তেমনি ওজন মাপার যন্ত্রও পিছিয়ে নেই।

দাঁড়িপাল্লা থেকে শুরু করে ডিজিটাল যন্ত্রও রয়েছে। আজকে আমি দুইটা স্মার্ট ওজন মাপার যন্ত্র নিয়ে কথা বলবো। এই দুটি ওয়েট মেশিন মোবাইলে অ্যাপ এর সাহায্যেও ব্যবহার করা যায়।

ওজন মাপার যন্ত্র ওজন মাপার কাজেই ব্যবহৃত হয়। তবে এই দুইটি স্মার্ট যন্ত্র ওজন মাপা ছাড়াও আরো অনেক তথ্য প্রদান করে যেগুলো উপকারী। নিচে সেই ব্যাপারে বলা আছে।

স্মার্ট ওজন মাপার যন্ত্র কেন কিনবেন?

ডিজিটাল ওজন মাপার মেশিন

এগুলো ডিজিটাল ওজন মাপার মেশিন হলেও আরেকটু আপডেটেড মেশিন। অর্থাৎ স্মার্ট ওয়েট মেশিনের সাহায্যে শুধু ওজনই জানবেন না, সাথে অনেক অনেক সুবিধাও পাবেন! নিজের স্বাস্থ্যের খুঁটিনাটি তথ্য পাবেন। যেমন,

  • পরিবারের সবার স্বাস্থ্যের প্রতি নজর রাখতে পারবেন। এগুলোতে আছে ফ্যামিলি ম্যানেজমেন্ট ফিচার। পরিবারের সবার কখন কেমন স্বাস্থ্য সবকিছু সম্পর্কে তথ্য পাবেন। আগেই বলেছি এটা দিয়ে শুধু ওজন দেখায়না। অতীত,বর্তমান সব তথ্য এবং সাথে অনেক এডভাইজ পাবেন।
  • প্রতিবার স্বাস্থ্য ভালো না মন্দ অবস্থায় আছে সেটা জানতে পারবেন।
  • স্বাস্থ্যের অতীত বর্তমান সব তথ্য পাবেন এক জায়গায়।
  • খুব পাতলা এবং দেখতে অনেক সুন্দর।

আপনার এবং আপনার পরিবারের জন্য দুটি ওজন মাপার যন্ত্র সাজেস্ট করলাম,

Meilen WS-180 ওয়েট মেশিন

ওজন মাপার ডিজিটাল মেশিন

কমদামে এই ওজন মাপার যন্ত্রটি আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে। দেখতে খুব চমৎকার। আর ওজনের একুরেট রেজাল্ট প্রকাশ করে। মজার বিষয় হলো এটা এতোটাই স্মার্ট যে এটা দিয়ে শুধু ওজন মাপা যায় যে তা না। ওজন মাপা ছাড়াও অনেক তথ্য প্রকাশ করে এই যন্ত্র।

এটাতে এলইডি ডিসপ্লে রয়েছে যেটা হাইড থাকে। ওজন মাপার সময় রেজাল্ট দেখায়। উপরের অংশে গ্লাস আছে। আধা কেজি থেকে শুরু করে ১৮০ কেজি পর্যন্ত ওজন নিতে পারে এই যন্ত্র। এই স্মার্ট ওজন মাপার যন্ত্র টোটাল ২৩ ধরনের ডাটা ডিটেক্ট করতে পারে । যে ডাটাগুলো ডিটেক্ট করতে পারে সেগুলো হলো,

এই ওজন মাপার যন্ত্র আরো দারুণ ফিচার সমৃদ্ধ,

  • ভয়েস ব্রডকাস্টিং সিস্টেম রয়েছে। অ্যাপ এর সাহায্যে ব্যবহার করার সময়ে রিয়েল টাইম ভয়েস ব্রডকাস্টিং করা যায়।
  • ইউনিট কনভার্ট করা যায়।
  • টার্গেট লক করে রাখার ফিচার আছে। এটা দিয়ে কি করে সেটা আপনার মাথায় আসতে পারে। ধরুন আপনি চাচ্ছেন আগামী ৩ মাসে ৫ কেজি ওজন বাড়াতে। বর্তমানে কত ওজন এবং ভবিষ্যতে কত ওজনে যেতে চান তা লক না করে রাখলে ভুলে যাবার সম্ভাবনা থাকে। মানুষ অংকে পরিমাপযোগ্য তথ্য ভুলে যায়। এটাই এই ফিচারের মূল কারণ।
  • যারা ডায়েট করেন তাদের জন্য আছে ‘ডায়াট সাজেশন্স’ ফিচার। এই ফিচারের সাহায্যে ডায়েট সম্পর্কীত অনেক তথ্য এবং এডভাইজ পাবেন।
  • আপনার ওজন অনুযায়ী কিভাবে এক্সারসাইজ করলে ভালো হবে সেটার এডভাইজ পাবেন।
  • অতীতের সব রেকর্ড সংরক্ষীত থাকে। এই ফিচারের বদৌলতে আপনি বিগত সময়ে কতটুকু নিজেকে ইমপ্রুভ করতে পেরেছেন সেটার রেকর্ড দেখতে পারবেন।
  • অটোমেটিক ডাটা এনালাইজ করে বিভিন্ন তথ্য প্রদান করে।
  • মজার ব্যাপার হলো ফ্যামিলি মেম্বারদের আলাদা আলাদা একাউন্ট খোলা যায় এবং সব একাউন্ট এক জায়গায় ম্যানেজ করা যায়। আপনি আপনার পরিবারের সবার স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রাখতে পারবেন এই ফিচারের কারণে। ইন্টারেস্টিং না?
  • ডাটা স্টোরেজ করে রাখা যায়।
  • রিমাইন্ডার ফিচার আছে যেটা ব্যবহার করে আপনি আপনার সেট করা নির্দিষ্ট সময়ে রিমাইন্ডার পাবেন।

Xiaomi Mi Weight Scale 2 ওয়েট মেশিন

ওজন মাপা

আরেকটা দুর্দান্ত ওজন মাপার যন্ত্র হলো Xiaomi Mi Weight Scale 2.

এটা এক কথায় আপনার পরিবারের খেয়াল রাখবে। আপনার পরিবারের অদৃশ্য শুভাকাঙ্ক্ষী ধরে নিতে পারেন। বিশ্বাস হয়না?

যাহোক, মজা করলাম। তবে সত্যি এই ওয়েট মেশিন দুর্দান্ত। এটা অটোমেটিক আপনার পরিবারের সদশ্যের স্বাস্থ্য এনালাইজ করে আপনাকে রেজাল্ট দেখাবে।

কার কেমন স্বাস্থ্য, কি কি করলে উন্নতি হবে, একজনের সাথে আরেকজনের স্বাস্থ্যের পার্থক্য ইত্যাদি তথ্য আপনাকে উপস্থাপন করবে। সেই মোতাবেক আপনি আপনার পরিবারের সাস্থ্য সুস্থতা সবকিছুর প্রতি খেয়াল রাখতে পারবেন।

আরও মজার ব্যাপার হলো আপনার পরিবারের বাইরে কেউ ওজন মাপতে চাইলে গেস্ট মুড অন করে দিলে অতিথির রেকর্ড রাখা ছাড়াই রেজাল্ট দেয়! আর কোনো নতুন ব্যক্তি ওজন মাপতে গেলে এই যন্ত্র অটোমেটিক রিকগনাইজ করতে পারে। সাথে সাথে অ্যাপে জানিয়ে দেয় এই ব্যাপারটি। ইন্টারেস্টিং!

Xiaomi Mi Weight Scale 2

এই যন্ত্র অনেক সুন্দর। চমৎকার স্মার্ট একটা যন্ত্র। উপরের অংশ গ্লাস আর বডি খুবই পাতলা। টাচ ফিচারের সাথে এলইডিই ডিসপ্লেতে রেজাল্ট প্রকাশ করে।

এটাতে ব্লুটুথ ৫.১ ব্যবহার করা হয়েছে যার কারণে খুব ফাস্ট কাজ করা যায়। অসুবিধা হয়না।
এটা ১০০ গ্রাম থেকে ১৫০ কেজি পর্যন্ত ওজন নিতে পারে।

আর সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো এটা শাওমির প্রোডাক্ট। তাই ভরসা রাখতে পারেন। ওদের প্রোডাক্ট নিয়ে নিশ্চিন্ত থাকা যায়।

যারা হিন্দি বুঝেন তাদের জন্য এই রিভিউ ভিডিও

উপরের দুটির যেকোনো একটা প্রোডাক্ট আপনি কিনতে পারেন। ব্যক্তিগতভাবে শাওমির প্রোডাক্ট সাজেস্ট করবো। প্রথমটাতে অনেক বেশি ফিচার থাকলেও শাওমি পপুলার ব্রান্ড হিসেবে ভালো সার্ভিস দিবো।

আমাদের আরো রিভিউ পাবেন এখানে। পরিবার নিয়ে ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন।

আমাদের আরো ব্লগ পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.