EKEN H9R

EKEN H9R কমদামে বেস্ট একশন ক্যামেরা রিভিউ

ইলেকট্রনিক পণ্য ক্যামেরা
Spread the love

EKEN H9R একশন ক্যামেরা

EKEN H9R একশন ক্যামেরা আমার কাছে কমদামে সবচেয়ে বেস্ট লেগেছে। অনেকেই শাওমি ওয়াই আই ২ কে ক্যামেরা বেশি পছন্দ করেন। তবে এর দাম একটু বেশি। আজকের এই EKEN H9R একশন ক্যামেরা রিভিউ দিবো যেটার দাম একদম কম।

আর এর রিভিউ চেক করতে গেলে দেখবেন ৯০% রিভিউ ৫ স্টার আর বাকি ১০% রিভিউ ৪ স্টার। বুঝতেই পারছেন কমদামে কতটা ভালো ক্যামেরা এটা!

দাম?

মাত্র ৪০০০ টাকা!

EKEN H9R একশন ক্যামেরা নিয়ে আমার অভিজ্ঞতা

অভিজ্ঞতা অসাধারণ! এই দামে এই একশন ক্যামেরা আমার কাছে জাস্ট পারফেক্ট লেগেছে। ৬০০০/৭০০০ টাকার প্রোডাক্ট এর চাইতেও অনেক ভালো পারফর্মেন্স পেয়েছি যেটা অসাধারণ!

ছবির কোয়ালিটি ভালো। এটা নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। আমি কিছু ছবি দিয়ে দিলাম। দেখে নিন।

একশন ক্যামেরা
চন্দ্রনাথ পাহাড়
অ্যাকশন ক্যামেরা
পারকির চর, চট্টগ্রাম
সেইন্ট মার্টিন
সেন্ট মার্টিন

ভিডিও পারফর্মেন্সও বেস্ট! এই কোয়ালিটি নিয়ে আপনার বাজে অভিজ্ঞতা হবেনা। এই ভিডিওতে কিছু অংশ আছে।

EKEN H9R একশন ক্যামেরা দিয়ে শ্যুট করা ভিডিও

চোখ বন্ধ করে একে ৯/১০ দেয়া যায়। এই দামে কি নাই এই ক্যামেরায়! ডিসপ্লে আছে, ওয়াটারপ্রুফ বক্স আছে!

যেকোনো একশন ক্যামেরায় ব্যাটারি ক্যাপাসিটি সাধারণত কম হয়। এই দামে এই ক্যাপাসিটি মন্দ না। অনেক সময় চার্জ থাকে। তবে আমার একশন ক্যামেরা ব্যবহারের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি যেকোনো একশন ক্যামেরার সাথে একটা এক্সট্রা ব্যাটারি কিনে নিবেন।

যারা পানির নিচে শ্যুট করতে চান তাদের জন্য তো এই ক্যামেরা সোনায় সোহাগা! সাথে ওয়াটারপ্রুফ কেস/বক্স থাকবে। ফ্রি একদম। আমি যখন অন্য একশন ক্যামেরা ব্যবহার করতাম তখন এসব আলাদা আলাদা কিনতে হয়েছিলো।

একেকটা এক্সেসরিজ এর দামও অনেক বেশি। মিনিমাম ৫০০ টাকা করে। আর ওয়াটারপ্রুফ কেস/বক্স এর দাম তো এক-দেড় হাজার টাকা হয়।

একশন ক্যাম

যদি খারাপ দিক বলতে বলেন তাহলে আমি বলবো এই দামে খারাপ দিক খোঁজা ঠিক না। এই দাম অনুযায়ী আমি কোনো খারাপ দিক পাইনি আসলে।

৪ হাজার টাকায় তো গো প্রো লেভেলের ক্যামেরার সাথে তুলনা করা যায়না। তবে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত যে কোনো একশন ক্যামেরার সাথে এই ক্যামেরা ভালোই ফাইট করতে পারবে।এতোটাই পছন্দ হয়েছে এর পারফর্মেন্স।

কি দেয়নি এই ক্যামেরার সাথে! সব ধরনের এক্সেসরিজ দেয়া হয়েছে ক্যামেরার সাথে।

আগেও বলেছি সাধারণত একশন ক্যামেরা গুলোর সাথে তেমন এক্সেসরিজ দেয়া হয়না। কিন্তু এই ক্যামেরার সাথে যা যা দিয়েছে তাতে আমি হতবাক। কমদামে যারা একশন ক্যামেরা চাচ্ছেন তাদের জন্য এই ক্যামেরা পারফেক্ট। নিশ্চিন্তে কিনে নিতে পারেন। নিচে একশন ক্যামেরা এর স্পেসিফিকেশন দিয়ে দিলাম। দেখে নিন।

EKEN H9R একশন ক্যামেরা স্পেশাল ফিচার

একশন ক্যামেরা কত
  • এই ক্যামেরা দিয়ে ১৭০ ডিগ্রি এঙ্গেলে ছবি উঠে।
  • বিল্ট ইন ওয়াইফাই আছে। এই ওয়াইফাই দিয়ে আপনি নেট চালাতে পারবেন ভাবলে ভুল ভাববেন। এটা দিয়ে মোবাইলের সাথে আপনার ক্যামেরা কানেক্ট করাতে পারবেন।
  • ৪কে ভিডিও শ্যুট করতে পারবেন! এই দামে মাইন্ডব্লোয়িং!
  • ২ ইঞ্চি টিএফটি ডিসপ্লে আছে! শাওমি তে আপনি ডিসপ্লে পাবেন না। মাইন্ডব্লোয়িং!
  • এটা দিয়ে আপনি ৬০ ফ্রেম পার সেকেন্ডে ১০৮০পি তে ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন।
  • এটাতে যে ইমেজ সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে সেটা ভ্যালু ফর মানি দিবে। দাম অনুযায়ী পারফেক্ট।

আরো ফিচার

  • MOV, H.264 ভিডিও ফরম্যাট।
  • JPG ফটো ফরমেট।
  • পানির নিচে সর্বোচ্চ ১০০ ফিট পর্যন্ত ওয়াটারপ্রুফ থাকবে।
  • Micro SDHC card সাপোর্ট করবে। তবে মেমোরি সাথে পাবেন না। আলাদা কিনতে হবে।
  • 1050mAh ব্যাটারি। দাম অনুযায়ী ব্যাটারি নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। আমার কাছে যথাযথ মনে হয়েছে।

এই একশন ক্যামেরার সাথে যা যা পাবেন

একশন ক্যামেরার দাম

এই একশন ক্যামেরার সবচেয়ে ভালো লাগার বিষয় নিয়ে কথা বলবো এখন। এটার সাথে যা যা পাবেন,

  • EKEN H9R Sports Action Camera (১ টি। এটাই মূল ক্যামেরা)
  • USB Charger (১ টি)
  • Waterproof Housing (ওয়াটারপ্রুফ কেস/বক্স ১ টি)
  • Handle Bar ( ১ টি)
  • Helmet Mounts (১ টি)
  • Bandages (১ টি)
  • Battery (১ টি)
  • Wireless Remote (১ টি ওয়ারলেস রিমোট পাবেন যেটার সাহায্যে আপনি দূর থেকেও ক্যামেরা কন্ট্রোল করতে পারবেন)
  • Tethers (১ টি)
  • Metal Tether (১ টি)
  • Protective Backdoor (১ টি)
  • USB Cable (১ টি)
  • Clip (১ টি)
  • Mount (১ টি)

এই দামে এতোগুলো এক্সেসরিজ কল্পনার বাইরে! আপনি ডিস্যাটিসফাই হবেন না এটা শিওর।

গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ঃ মিনিমাম ১৬ জিবি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করতে হবে।এর নিচে সাপোর্ট করবেনা। তবে ভালো হয় ৩২ জিবি কার্ড হলে।

যারা কমদামে একটা ভালো একশন ক্যামেরা খুঁজছেন তারা চোখ বন্ধ করে এটা কিনে নিতে পারে। দাম কম হলেও এই ক্যামেরায় যা যা আছে তাতে আপনি স্যাটিসফাই হবেন। বিডিশপ থেকে অরিজিনাল প্রোডাক্ট পাওয়া যায় তাই ওখান থেকেই অর্ডার দেই আমি। তাদের সার্ভিস ভালো ছিলো। আপনিও চাইলে ওখান থেকে কিনতে পারেন।

ধন্যবাদ লেখাটি পড়ার জন্য। আপনারা আপনাদের মতামত জানাবেন কমেন্ট করে। আপনাদের অভিজ্ঞতাও সবাই জানুক। আর যারা ভালো হেডফোন বা ইয়ারফোন কিনতে চান তারা আমাদের এই লেখাটি পড়তে পারেন। আশা করি উপকৃত হবেন।

আমাদের আরো ব্লগ পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.