কমদামে সেরা ৫ পিসি (ল্যাপটপ)

কমদামে সেরা ৫ পিসি (ল্যাপটপ)

কম্পিউটার ইলেকট্রনিক পণ্য
Spread the love

কমদামে সেরা ৫ পিসি (ল্যাপটপ সেগমেন্ট)

পিসি কিনতে গেলে অনেকে কনফিউসড থাকেন যে কি কিনবেন। অনেকে বুঝে পান না কোনটা কিনলে উনার জন্য পারফেক্ট হবে। যদি ল্যাপটপ বা কম্পিউটার পিসি এর ব্যাপারে আপনার আইডিয়া শূন্য হয়ে থাকে তাহলে দুইটা টার্মস বলে দিচ্ছি। এগুলা জেনে তারপর আমার বাকি লেখা পড়ুন। তাহলে বুঝতে পারবেন কোনটার কাজ কেমন।

ক্লক স্পিডঃ প্রসেসর কত দ্রুত কাজ করে তা ক্লক স্পিডের উপর নির্ভর করে। যত বেশি ক্লক স্পিড, পিসি তত ফাস্ট কাজ করবে।

ক্যাশ মেমোরিঃ একটা পিসি এর সবচেয়ে বড় দুই মেমোরি পার্ট হলো হার্ড ডিস্ক এবং র‍্যাম। কিন্তু ওখান থেকে ডাটা প্রসেস হতে সময় লাগে। তাই এই মেমোরি যুক্ত করা হয় যে দ্রুত ডাটা আদান প্রদান করা যায়। অর্থাৎ সেখানে এই মেমোরি কাজ করে যেখানে অল্প সময়ে একই ডাটা বারবার ব্যবহারের প্রয়োজন পড়ে। ক্যাশ মেমোরি যত বেশি হবে ততই প্রসেসর ভালো কাজ করবে।

আরো জানতে এই লেখা পড়ে আসতে পারেন। তাহলে ধারণা আরো পরিষ্কার হবে এবং এই লেখা নিয়ে না বোঝার মতো কিছু থাকবেনা। আমার এই লেখায় আমি পিসি (ল্যাপটপ) গুলোর সামান্য কিছু স্পেক নিয়ে বলবো এবং একই সাথে বলে দিবো কেমন কাজের জন্য কোন পিসি (ল্যাপটপ) পারফেক্ট হবে। আশা করি আপনাদের উপকারে আসবে। লেখার শেষে টেবিল দিয়ে পার্থক্য দেখিয়েছি। সেটা দেখলে সিদ্ধান্ত সহজে নিতে পারবেন

১। Lenovo G4030 ল্যাপটপ পিসি

ব্রান্ড নামঃ Lenovo
ল্যাপটপ মডেলঃ Lenovo G4030
প্রসেসরঃ Pentium Quad Core N3540. পেনটিয়াম মাইক্রো প্রসেসর ইনটেল এর একটি প্রোডাক্ট। দাম অনুযায়ি এই প্রসেসর ভালোই। এতো কমদামি ল্যাপটপে এই প্রসেসর পারফেক্ট।

ক্লক স্পিডঃ 2.16-2.66 GHz. এই দামে এই ক্লক স্পিড অনেক ভালো বলা যায়।
ক্যাশ মেমোরিঃ ২ এমবি। এই দামে এতোটুকু ক্যাশ মেমোরি পারফেক্ট। তবে শুধু ডেইলি ইউজারদের জন্য পারফেক্ট।
ডিসপ্লে সাইজঃ ১৪ ইঞ্চি। এই দামে এর চেয়ে বড় ডিসপ্লে আশা করবেন না। আর যদি কেউ এরচেয়ে বড় ডিসপ্লে অফার করে তাহলে অন্যান্য বিষয়ে কম ভ্যালু দিবে। এটা এলইডি ডিসপ্লে।
র‍্যামঃ ৪ জিবি ডিডিআর৩এল র‍্যাম । প্রসেসর অনুযায়ী এই পরিমাণ র‍্যাম পারফেক্ট।
স্টোরেজঃ ৫০০ জিবি হার্ডডিস্ক। এই দামে পারফেক্ট। তবে আপনি চাইলে এক্সটার্নাল হার্ডডিস্ক ব্যবহার করতে পারেন।
গ্রাফিক্সঃ গ্রাফিক্স চিপসেট Intel HD 4600. এই দামে মন্দ বলা যাবেনা।
ইউএসবি পোর্টঃ ২ টা ইউএসবি পোর্ট পাবেন। একটা ইউএসবি ২.০ আরেকটা ইউএসবি ৩.০।
ব্যাটারি এবং ব্যাকআপঃ ৪ সেল লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি। যেটা ৪ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাকাপ দিতে সক্ষম। ৪ ঘন্টা পর্যন্ত মানে সর্বোচ্চ ৪ ঘন্টা। ডেইলি ইউজারদের জন্য ভালো।
ওজনঃ ২.৮ কেজি। প্রায় ৩ কেজির মতো ওজন।
অন্যান্যঃ ল্যান, ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, কার্ড রিডার এবং ওয়েবক্যাম।
কালারঃ কালো(ব্ল্যাক)
ওয়ারেন্টিঃ এক বছর।

দামঃ ২৪,৭০০ টাকা মাত্র।

যে ব্যবহারকারীদের জন্য পারফেক্টঃ আমি কয়েকবার এখানে ‘ডেইলি ইউজার’ কথাটা উল্লেখ করেছি। অর্থাৎ এই ল্যাপটপ পিসি তাদের জন্যই পারফেক্ট যারা মূলত গান শোনা, মুভি দেখা, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, মাইক্রোসফট অফিস বা অন্যান্য সাধারণ কাজ করবেন।

খুব বেশি ভারি কাজ যেমন ফটোসপ, ডিজাইন, ভিডিও এডিটিং ইত্যাদির জন্য এই ল্যাপটপ কখনোই পারফেক্ট না। আপনি যদি সাধারণ কাজের জন্য ল্যাপটপ কিনতে চান তাহলে আমার সাজেশন থাকবে এই ল্যাপটপ কিনতে পারেন। আর যদি আরো ভারি কাজ করতে চান এবং আরেকটু বাজেট বাড়াতে পারেন তাহলে পরের ল্যাপটপগুলো চেক করুন।

২। HP 15-AY028PA

ব্রান্ড নামঃ HP
মডেলঃ HP 15-AY028PA
প্রসেসরঃ PQC N3710. এটি ইন্টেল পেন্টিয়াম প্রসেসর। দাম অনুযায়ী এই প্রসেসর দিয়ে ভালো কাজ হবে। তবে ডেইলি ইউজারদের জন্য পারফেক্ট।

ক্লক স্পিডঃ 1.60-2.50GHz. ক্লক স্পিড ভালোই বলা যায়।
ক্যাশ মেমোরিঃ ২ এমবি ক্যাশ মেমোরি পাবেন। এই দামে ডেইলি ইউজারদের জন্য ভালো।
ডিসপ্লে সাইজঃ ১৫.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে সাইজ। দাম অনুযায়ী বেশ বড়সর ডিসপ্লে। এলইডি ডিসপ্লে হওয়ায় ভালো অভিজ্ঞতা পাবেন।
র‍্যামঃ ৪ জিবি ডিডিআর৩এল র‍্যাম পাবেন। দাম অনুযায়ী পারফেক্ট।
স্টোরেজঃ ৫০০ জিবি হার্ডডিস্ক। দাম অনুযায়ী এটা ঠিক আছে। তবে আপনার যদি আরো স্টোরেজের প্রয়োজন হয় তাহলে এক্সটার্নাল হার্ডডিস্ক ব্যবহার করতে পারেন।
গ্রাফিক্সঃ ইন্টেল এইচডি ৪০৫ গ্রাফিক্স ব্যবহার করা হয়েছে। দাম হিসেবে মন্দ না। রেগুলার ইউজারদের জন্য ঠিকঠাক।
ইউএসবি পোর্টঃ ইউএসবি পোর্ট তিনটা। একটা ইউএসবি ৩ আর বাকি দুইটা ইউএসবি ২।
ব্যাটারিঃ ৪ সেলের ব্যাটারি যার মাধ্যমে সর্বোচ্চ ৪ ঘন্টা ব্যাকাপ পাবেন।
ওজনঃ এই ল্যাপটপের ওজনের চেয়ে এটার ওজন কম। এই ল্যাপটপ মাত্র ২ কেজি ওজন।
অন্যান্যঃ ল্যান, ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, কার্ড রিডার এবং এইচডি ওয়েবক্যাম পাবেন।
কালারঃ ব্ল্যাক। এই কালারটাই স্মার্ট লাগে আমার কাছে।
ওয়ারেন্টিঃ ব্যাটারি এবং এডাপ্টর এর ওয়ারেন্টি ১ বছরের। এ ছাড়া ল্যাপটপ এর অন্যান্য সমস্যার ক্ষেত্রে ২ বছরের ওয়ারেন্টি। অন্যান্য সমস্যা বলতে ডিসপ্লে, কিবোর্ড ইত্যাদি আরকি।

দামঃ ২৮,৫০০ টাকা।

যারা কিনবেন এই ল্যাপটপঃ যারা ইন্টারনেট বা গান শোনা বা মুভি দেখার জন্য ল্যাপটপ কিনতে চান তাদের জন্য এই ল্যাপটপ। মাইক্রোসফট অফিসের কাজও করতে পারবেন। তবে বড় বড় কোনো কাজ করতে গেলে সমস্যায় পড়তে পারেন। যারা মোটামুটি ইউজার তারা এই ল্যাপটপ কিনতে পারেন।

৩। Lenovo G4080

ব্রান্ড নামঃ Lenovo
মডেলঃ Lenovo G4080
প্রসেসরঃ Intel Core i3 5010U 5th Generation. এই দামে কোর আই থ্রি ল্যাপটপকে অবশ্যই ভালো বলা যায়। কারণ অন্যান্য সেকশনগুলো প্রসেসর এর সাথে খাপ খেয়ে যাচ্ছে।

ক্লক স্পিডঃ 2.10 GHz. প্রসেসর অনুযায়ী এই স্পিড মোটামুটি ভালোই ধরে নেয়া যায়। এই দাম এই ক্লক স্পিড এর বেশি কেউ যদি দিতে যায় সেক্ষেত্রে অন্যান্য সেকশনে কম দিতে হবে।
ক্যাশ মেমোরিঃ ৩ এমবি। প্রসেসর আর ক্লক স্পিডের সাথে মিলে ভালোই পারফর্মেন্স দিবে এতটুকুতে।
ডিসপ্লে সাইজঃ এ জায়গাটাতে এসে একটু হতাশ হলাম। ডিসপ্লে সাইজ মাত্র ১৪ ইঞ্চি। তবে প্রসেসর বা অন্যান্য সেকশনে গুরুত্ব বাড়াতে গিয়ে তারা ডিসপ্লেতে কোপ বসিয়েছে। যারা আরো বিগ স্ক্রিন চান তারা এটা না কেনাই ভালো। তবে যারা এই দামে ভালো পারফর্মেন্স চান তাদের জন্য ডিসপ্লে কোনো ইস্যু না। এলইডি ডিসপ্লে।
র‍্যামঃ ৪ জিবি ডিডিআর৩এল র‍্যাম । দাম অনুযায়ী পারফেক্ট। ৫০ হাজারের কাছাকাছি ল্যাপটপ কিনলেও আপনি ৪ জিবি র‍্যামই পাবেন।
স্টোরেজঃ ১ টেরাবাইট। স্টোরেজ যারা বেশি চান তাদের আর কি চাই! এই দামে হিউজ স্পেস।
গ্রাফিক্সঃ ইন্টেল এইচডি ৫৫০০। ভালো হবে এই দামে।
ইউএসবি পোর্টঃ ২ টা ইউএসবি পোর্ট পাবেন। ১ টা ২.০ আরেকটা ৩.০ ইউএসবি।
ব্যাটারিঃ ৪ সেল লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি যেটা ৪ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাকাপ দিতে সক্ষম। দাম অনুযায়ী ভালো।
ওজনঃ ২.৫ কেজি।
অন্যান্যঃ ল্যান, ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, কার্ড রিডার এবং এইচডি ওয়েবক্যাম।
কালারঃ সিলভার। যারা ব্ল্যাক পছন্দ করেন না তাদের এই কালার পছন্দ হবে। ব্ল্যাক এর পর মূলত এই কালার খুব পপুলার।
ওয়ারেন্টিঃ ১ বছরের ওয়ারেন্টি।

দামঃ ৩০,৯০০ টাকা মাত্র

যাদের জন্য এই ল্যাপটপঃ ডেইলি ইউজারদের জন্য এই ল্যাপটপ ভালো। তবে কোর আই৩ প্রসেসর হওয়ায় টুকটাক ফটোশপ বা বিভিন্ন ডিজাইনের কাজ করতে পারবে। এখানে বলা সব ল্যাপটপেই মাইক্রোসফট অফিসের কাজ করতে পারবেন। অসুবিধা হবেনা।

৪। HP 14-AC130TU ল্যাপটপ পিসি

ব্রান্ড নামঃ HP
মডেলঃ HP 14-AC130TU
প্রসেসরঃ Intel Core i3 6100U 6th Generation. এই দামে সব ল্যাপটপেই কোর আই৩ পাবেন। তবে এই প্রসেসর যেহেতু আগেরটার চেয়ে আপডেটেড তারমানে আগেরটার চেয়ে বেটার পারফর্মেন্স পাবেন। তবে দামটাও সামান্য বেশি। এই দামে এই প্রসেসর পারফেক্ট।

ক্লক স্পিডঃ 2.30GHz. ভালো ক্লক স্পিড ।
ক্যাশ মেমোরিঃ ৩ এমবি। এখানেও পারফেক্ট।
ডিসপ্লে সাইজঃ ডিসপ্লে সাইজে একটু ছোট হলেও পারফর্মেন্স ভালো পাবেন। ১৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে।
র‍্যামঃ ৪ জিবি ডিডিআর৩এল র‍্যাম পাচ্ছেন। আগেও বলেছি এই দামে এটা পারফেক্ট। এ ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নাই।
স্টোরেজঃ ১ টেরাবাইট হার্ডডিস্ক পাচ্ছেন।
গ্রাফিক্সঃ ইনটেল এইচডি ৫২০ । দাম অনুযায়ী ঠিক আছে।
ইউএসবিঃ একটা পোর্ট। তবে পোর্ট ভার্সন ৩ দিয়েছে। ফাস্ট কাজ করবে।
ব্যাটারিঃ ৪ সেলের ব্যাটারিতে সর্বোচ্চ ৪ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাকাপ দিবে।
ওজনঃ ২.১০ কেজি। ২ কেজির একটু বেশি।
অন্যান্যঃ ল্যান, ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, কার্ড রিডার, ওয়েবক্যাম পাবেন।
ওয়ারেন্টিঃ ১ বছরের।
কালারঃ ব্ল্যাক

দামঃ ৩২,৭০০ টাকা মাত্র।

যাদের জন্য এই ল্যাপটপঃ ডেইলি ইউজারদের জন্য পারফেক্ট। আরেকটু হালকা ডিজাইন বা এসব কাজের জন্যও এটা খারাপ না। তবে খুব ভালো পারফর্মেন্স পাবেন না। শখের বসে এক আধটু ডিজাইন বা এরকম ভারি কাজ যারা করবেন তাদের জন্য ঠিক আছে। যারা শুধুমাত্র মুভি, গান শোনা বা ইন্টারনেট ব্রাউজ করেন তাদের জন্য এই ল্যাপটপ পারফেক্ট।

৫। Lenovo B4180 ল্যাপটপ পিসি

ব্রান্ডঃ Lenovo
মডেলঃ Lenovo B4180
প্রসেসরঃ Intel Core i5 6200U 6th Gen. কমদামি ল্যাপটপের বাইরে এই ল্যাপটপ সাজেস্ট করলাম আমি। কেন একটু পর বলছি।

ক্লক স্পিডঃ 2.30 GHz. প্রসেসরের সাথে সহজেই খাপ খেয়েছে। তাই ভালো বলবো।
ক্যাশ মেমোরিঃ ৩ এমবি।
ডিসপ্লেঃ ১৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে। ডিসপ্লে যদি বড় চান তাহলে এই ল্যাপটপ আপনার জন্য নয়।
র‍্যামঃ ৪ জিবি ডিডিআর৩এল র‍্যাম পাচ্ছেন। অবশ্যই ভালো।
স্টোরেজঃ ১ টেরাবাইট হার্ডডিস্ক পাচ্ছেন। পারফেক্ট বলবো। যাদের আরো বেশি প্রয়োজন তারা এক্সটার্নাল হার্ডডিস্ক কিনে নিবেন।
গ্রাফিক্সঃ ইনটেল এইচডি ৫২০ গ্রাফিক্স। ভালো বলবো।
ইউএসবি পোর্টঃ ২ টা ৩.০ ভার্সন এর পোর্ট আর একটা ২.০ ভার্সন এর পোর্ট পাচ্ছেন। যারা ফাস্ট ডাটা ট্রান্সফার করতে চান অন্য ডিভাইস থেকে, তাদের জন্য বেস্ট।
ব্যাটারিঃ আগেরগুলোর মতো।
কালারঃ ব্ল্যাক।
অন্যান্যঃ অন্যগুলোর মতোই।
ওয়ারেন্টিঃ ১ বছর।

দামঃ ৪৩,২০০ টাকা মাত্র

যাদের জন্য এই ল্যাপটপঃ আপনি যদি ভারি ভারি কাজ যেমন গ্রাফিক্স ডিজাইন, ভিডিও এডিটিং ইত্যাদি করতে চান তাহলে কমদাম এ এই ল্যাপটপ বেস্ট। এতো দামি ল্যাপটপ কমদাম কিভাবে হয় সেটা মনে আসতে পারে। কিন্তু এসব কাজের জন্য আগেরগুলো পারফেক্ট না। আগেরগুলো দিয়ে এসব কাজ করতে পারবেন, তবে পারফর্মেন্স ভালো পাবেন না। তাই যারা এমন কাজ করবেন তাদের জন্য আমি সাজেস্ট করবো এই ল্যাপটপ।

এই টেবিল থেকে খুব দ্রুত বুঝে নিতে পারবেন পার্থক্য,

ল্যাপটপ পিসিLenovo G4030HP 15-AY028PALenovo G4080 HP 14-AC130TULenovo B4180
ছবিLenovo G4030HP 15-AY028PALenovo G4080 HP 14-AC130TULenovo B4180
প্রসেসরPentium Quad Core N3540PQC N3710Intel Core i3 5010U 5th GenIntel Core i3 6100U 6th GenIntel Core i5 6200U 6th Gen
ক্লক স্পিড2.16-2.66 GHz1.60-2.50GHz2.10 GHz2.30GHz2.30 GHz
ক্যাশ মেমোরি২ এমবি২ এমবি৩ এমবি৩ এমবি৩ এমবি
ডিসপ্লে১৪ ইঞ্চি১৫.৬ ইঞ্চি১৪ ইঞ্চি১৪ ইঞ্চি১৪ ইঞ্চি
র‍্যাম৪ জিবি ডিডিআর৩এল৪ জিবি ডিডিআর৩এল৪ জিবি ডিডিআর৩এল৪ জিবি ডিডিআর৩এল৪ জিবি ডিডিআর৩এল
স্টোরেজ৫০০ জিবি হার্ডডিস্ক৫০০ জিবি হার্ডডিস্ক১ টেরাবাইট হার্ডডিস্ক১ টেরাবাইট হার্ডডিস্ক১ টেরাবাইট হার্ডডিস্ক
গ্রাফিক্সইন্টেল এইচডি ৪৬০০ইন্টেল এইচডি ৪০৫ইন্টেল এইচডি ৫৫০০ইনটেল এইচডি ৫২০ইনটেল এইচডি ৫২০
ব্যাটারি৪ সেল লিথিয়ামায়ন ব্যাটারি৪ সেলের ব্যাটারি৪ সেল লিথিয়াম আয়ন৪ সেল লিথিয়াম আয়ন৪ সেল লিথিয়াম আয়ন
ইউএসবি পোর্ট২ টা৩ টা২ টা১ টা২ টা
ওয়ারেন্টিএক বছর২ বছর( ব্যাটারি, এডাপ্টার ১ বছর)১ বছর১ বছর১ বছর
দাম২৪,৭০০ টাকা২৮,৫০০ টাকা৩০,৯০০ টাকা৩২,৭০০ টাকা৪৩,২০০ টাকা
শপকিনুনকিনুনকিনুনকিনুনকিনুন

আজকে এই ৫ টি ল্যাপটপ নিয়ে লিখলাম। পরবর্তীতে আরো লেখা আসবে। আর হ্যাঁ, গেমিং হেডফোনের জন্য আমাদের এই লেখা পড়তে পারেন।

আমাদের আরো লেখা

Leave a Reply

Your email address will not be published.