হেডফোন

কমদামে বেস্ট ৫ গেমিং হেডফোন এবং ইয়ারফোন

ইলেকট্রনিক পণ্য ইলেকট্রনিক এক্সেসরিজ গেমিং হেডফোন
Spread the love

কমদামে কি কি হেডফোন এবং ইয়ারফোন পাওয়া যায়?

ইন্টারনেটের এই যুগে হেডফোন এর অনেক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। অন্যান্য কাজের সাথে সাথে গেমিং ও জনপ্রিয়তা পেয়েছে। গেমিং কে কাজের সাথে তুলনা করার মূল কারণ এটাও এখন একটা প্রফেশন হয়ে যাচ্ছে। এখন বলতে অন্তত ভারতীয় উপমহাদেশ বলা যায়। কারণ ডেভেলপড দেশগুলোতে আগে থেকেই এটা ছিলো।

কোনো প্রোডাক্ট কিনতে গেলে আমরা প্রায় সময় কমদামি প্রোডাক্ট কিনে ফেলি। তবে ওগুলো নষ্ট হয় দ্রুত। সবচেয়ে বড় কথা প্রোডাক্টগুলোর কোয়ালিটি খুব খারাপ হয়। পারফেক্ট কোয়ালিটি এবং টেকসই প্রোডাক্ট কিনতে একটু বেশি টাকা খরচ করতে কার্পণ্য করবেন না।

হেডফোনের দাম

বর্তমানে প্রচুর অনলাইন কম্পিটিশন হয়। যেটাকে ই-স্পোর্টস নামে সবাই জানি। আগে ই-স্পোর্টস বলতে শুধু পিসি গেমিং কে জানতাম। কিন্তু সেটার চেয়েও জনপ্রিয়তা পাচ্ছে মোবাইল গেমিং। স্পেশালি উপমহাদেশে। একই সাথে গেমিং প্রোডাক্টের জনপ্রিয়তাও বেড়েছে বহুগুণ। কিন্তু অনেকেই জানেন না কোন গেমিং হেডফোন বা ইয়ারফোন ভালো হবে।

আমার আজকের এই লেখা তাদের জন্যই। সাধ্যের মধ্যে কেনা যায় এমন ৫ টা গেমিং হেডফোন ও ইয়ারফোন সাজেস্ট করলাম। ভালো লাগলে এবং দাম পছন্দ হলে কিনে নিতে পারেন। প্রতিটা প্রোডাক্টের নামে ক্লিক করে আরো বিস্তারিত জানতে পারবেন।

1. PLEXTONE G20

ভালো হেডফোন

দামঃ ৭২০ টাকা মাত্র
বিস্তারিতঃ এই ইয়ারফোন সাধারণ গেমারদের জন্য। যারা রেগুলার মোটামুটিং গেমিং করেন তারা এই ইয়ারফন কিনতে পারেন। কমদামে হেডফনের পারফর্মেন্স সন্তুষজনক।

এই ইয়ারফোন এর বৈশিষ্ঠ্যঃ

  • ডাবল বেজ ইফেক্ট। যার কারণে হাই কোয়ালিটি সাউন্ড পাওয়া যায়।
  • নয়েজ ক্যান্সেলেশন সিস্টেম আছে। যার কারণে আপনি কথা বলার সময় বিপরীত পাশের লোক কোনো নয়েজ পাবেনা।
  • কানে ভালোভাবে এডজাস্ট হয়। যার ফলে কান থেকে হেডফোন খুলে যাবার সম্ভাবনা কম।
  • গেমিং এর জন্য খুব বেশি ভালো বলা যাবেনা। মোটামুটি বলা যায়।

প্রোডাক্টের সাথে যা পাবেনঃ

  • ক্যাবলের দৈর্ঘ্য ২.২
  • কন্ট্রোলার। যার মাধ্যমে প্রোডাক্টটি থেকেই সাউন্ড কন্ট্রোল করা যায়।
  • ৪ জোড়া ইয়ারটুপস( ফোম হিসেবে চিনে থাকবেন অনেকে)
  • ২৩.৬ ইঞ্চি/ ০.৬ মিটার অতিরিক্ত ক্যাবল
  • পিসি কনভার্টার। যার মাধ্যমে পিসিতে কানেক্ট করতে পারবেন।

2. Plexton G30

ভালো কোয়ালিটির ইয়ারফোন

দামঃ ১৩৫০ টাকা মাত্র
বিস্তারিতঃ এই ইয়ারফোন গেমারদের মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয়। এটার স্পেশাল বৈশিষ্ঠ্য হচ্ছে এটা সব ডিভাইসেই সাপোর্ট করে। সব এন্ড্রোয়েড ডিভাইসেও ব্যবহার করতে পারবেন।
এছাড়াও সাথে দেয়া ক্যাবল, এডাপ্টর দিয়ে পিএস৪, এক্সবক্স, ডেস্কটপ, ল্যাপটপ, আইফোন, আইপ্যাডেও ব্যবহার করতে পারবেন!
সাধ্যের মধ্যে পারফর্মেন্স ভালোই দেয়।

বৈশিষ্ঠ্যঃ

  • এক্সট্রা বেইজ। অনেক ভালো সাউন্ড পাবেন।
  • প্রোডাক্টটিতেই সাউন্ড কন্ট্রোলার আছে। এটা দিয়েই সাউন্ড কন্ট্রোল করতে পারবেন। নিজের মাইক চালু ও বন্ধ করার বাটনও আছে।
  • একটিভ নয়েজ ক্যান্সেলেশন সিস্টেম আছে। যার কারণে আপনি কথা বলার সময় বিপরীত পাশের লোক কোনো নয়েজ পাবেনা।
  • ৩.৫ এমএম জ্যাক
  • এক্সট্রা মাইক সিস্টেম আছে প্রোডাক্টটির সাথে। যেটা গর্জিয়াস লুক তৈরি করে। এটাকে সবদিকে মুভ করা যায়।

প্রোডাক্টের সাথে যা যা পাবেনঃ

  • কানের ফোম পাবেন ভিন্ন সাইজের
  • কন্ট্রোলার পাবেন। যেটা সাউন্ড কন্ট্রোলের কাজে লাগে।
  • অতিরিক্ত ক্যাবল পাবেন।
  • পিসি কনভার্টার পাবেন।

3. Havit 7.1

ভালো ইয়ারফোন

দামঃ ২৩৫০
বিস্তারিতঃ এটা পিসি গেমিং হেডফোন। খুব দুর্দান্ত পারফর্মেন্স আশা করবেন না। দাম কম হলে পারফর্মেন্স ওরকম হবে। তবে এই দামে এই পণ্য খুবই ভালো। এই হেডফোনের আরজিবি লাইটের পারফর্মেন্সও স্যাটিসফ্যাকটরি।
তাই আপনার বাজেট যদি ২০০০-২৫০০ হয় তাহলে এই হেডফোন আপনার জন্য একমাত্র পছন্দ হতে পারে।

বৈশিষ্ঠ্যঃ

  • ৭.১ ইউএসবি প্লাগ
  • আরজিবি লাইটিং
  • গুড পারফর্মেন্স
  • ক্লিয়ার সাউন্ড

4. Plexton G50

ইয়ারফোনের দাম

দামঃ ৩১৯০ টাকা মাত্র
বিস্তারিতঃ একটা বেস্ট ইয়ারফোন বলতে পারেন। সাউন্ড থেকে শুরু করে সবকিছুতে পারফেক্ট। যারা পাবজি লাভার তাদের জন্য এরচেয়ে ভালো হেডফোন আর হতেই পারেনা। নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বলছি এই হেডফোন ব্যবহার করে আপনি সম্পূর্ণ স্যাটিসফাইড হবেন।

বৈশিষ্ঠ্যঃ

  • নয়েজ ক্যান্সেলেশন
  • ক্লিয়ার অডিও
  • বেস্ট এক্সপেরিয়েন্স
  • সব ডিভাইসে সাপোর্টেড
  • স্টাইলিশ ডিজাইন
  • প্রফেশনাল গেমারদের পছন্দ

সাথে যা যা পাবেনঃ

  • কন্ট্রোলার
  • এক্সট্রা মাইক
  • ইয়ার ফোম

5. Maono AU-MH501

ইয়ারফোন

দামঃ মূল দাম ৩৫০০ টাকা মাত্র। বর্তমানে ৪৫% ডিসকাউন্টে পাবেন ২০০০ টাকায়।
বিস্তারিতঃ এটা কমদামে বেস্ট হেডফোন। এটার একের অধিক স্পেশালিটি রয়েছে। এটা যেমন একটা মিউজিক হেডফোন, তেমনি গেমিং হেডফোন। অলরাউন্ডার বলতে পারেন। অনেক ভালো পারফর্মেন্স।

বৈশিষ্ঠ্যঃ

  • বেস্ট বাজেট হেডফোন
  • এক্সেলেন্ট সাউন্ড
  • মিউজিক হেডফোন
  • গেমিং হেডফোন
  • কমফোর্টেবল

আপনার পছন্দ অনুযায়ী পণ্য কিনে নিন। গেম এর পুর্ণ আনন্দ নিতে এই পণ্যগুলো আপনার পছন্দ হতে পারে। প্রিয় গেমার, বেস্ট অব লাক। আমাদের আরো লেখা পড়তে ভিজিট করুন এখানে

আমাদের আরো ব্লগ পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.